ঈদের আগে প্রকাশ হতে পারে এসএসসির ফল,৭০ শতাংশ কাজ শেষ চট্টগ্রাম বোর্ডে

640

ঈদের আগে প্রকাশ হতে পারে এসএসসির ফল,৭০ শতাংশ কাজ শেষ চট্টগ্রাম বোর্ডে।

নিজস্ব সংবাদদাতা : করোনাভাইরাসের কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১৭মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। গত ২৬ মার্চ থেকে সারাদেশে সাধারণ ছুটিও ঘোষণা করা হয়। করোনার প্রভাবে স্থগিত করা হয় এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা।তবে বন্ধের মাঝেও ঈদের আগে ২০২০ সালের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় অংশ নেওয়া পরীক্ষার্থীদের জন্য সুখবর আসতে পারে। ঈদের আগে ঘোষণা করা হতে পারে এসএসসি পরীক্ষার ফল। ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি ফলাফল সংক্রান্ত কাজ ৭০ শতাংশ শেষ হয়েছে। এসব বিষয় নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর প্রদীপ চক্রবর্তী।

——————————————————————-

📌📌শিক্ষা সম্পর্কিত খবরাখবর জানতে এখানে ক্লিক করে শিক্ষা গ্রুপে ঢুকে JOIN GROUP এ  ক্লিক করুন।গ্রুপে আপনিও শেয়ার করুন…

——————————————————————-

👉👉দৈনন্দিন শিক্ষা সম্পর্কিত খবরাখবর পেতে এখানে ক্লিক করে দৈনিক শিক্ষা সংবাদ পেইজে ঢুকে ” LIKE PAGE ” 👍 এ লাইক দিন

——————————————————————-

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘২০২০ সালের এসএসসি’র ফলাফল নিয়ে কাজ চলছে। আমরা চেষ্টা করছি ঈদের আগে ফলাফল দেওয়ার জন্য। বিশেষ ব্যবস্থার ওএমআর’গুলো নিয়ে কাজ করেছি। আমাদের প্রায় ৭০ শতাংশ কাজ শেষ। বাকি ৩০ শতাংশের কাজ চলছে। ওগুলো শেষ হয়ে যাবে আশা করি। ঈদের আগে ফলাফল দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, বলেন, ‘আমরা এখন কাজ করে যাচ্ছি। তবে ঢাকা শিক্ষাবোর্ড, মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড এবং কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের কাজের অগ্রগতির উপর ভিত্তি করে, আমরা দশ দিন পর নিশ্চিতভাবে বলা যাবে ফলাফল আমরা কখন দিতে পারবো। তবে প্রসেসিং চলছে।’

শিক্ষার্থীদের মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে ফলাফল দেওয়ার কোন সিদ্ধান্ত হয়েছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এখন স্কুল বন্ধ। সবার মোবাইল নাম্বার যোগাড় করা অনেক কঠিন। আগের নিয়মে ইন্টারনেটেই ফলাফল দেওয়া হবে।’

এবার চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে প্রায় দেড় লাখ পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ১৯৬টি কেন্দ্রে ১ হাজার ৪৮টি প্রতিষ্ঠানের মোট ১ লাখ ৪৪ হাজার ৯০ জন পরীক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশ নেয়। যা সংখ্যায় গতবার ছিল ১ লাখ ৪৯ হাজার ৮৬৭ জন। এবার অংশ নেয়া মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্র ৬৫ হাজার ৮০৫ জন এবং ছাত্রী ৭৮ হাজার ২৮৫ জন।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Facebook Comments