টিভিতে ক্লাস সম্প্রচার চললেও সুযোগ নেই শিক্ষক-শিক্ষার্থীর যৌথ অংশগ্রহণের

312

টিভিতে ক্লাস সম্প্রচার চললেও সুযোগ নেই শিক্ষক-শিক্ষার্থীর যৌথ অংশগ্রহণের

নিজস্ব সংবাদদাতা : দেশে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা (মাউশি) অধিদপ্তর ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য টেলিভিশনে ক্লাস সম্প্রচার শুরু করলেও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এখনো টিভিতে ক্লাস প্রচার শুরু করতে পারেনি।

করোনাভাইরাসের কারণে শুধু বাংলাদেশই নয়, বিশ্বের ১৮৫ দেশে জাতীয়ভাবেই বন্ধ রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যেতে পারছে না শিক্ষক-শিক্ষার্থী কেউ। তবে প্রায় সব দেশই অনলাইনে শিক্ষাব্যবস্থা চালু রেখেছে। বাংলাদেশে শুধু সংসদ টেলিভিশনে ক্লাস প্রচার করা হলেও বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত গুগল ক্লাসরুম, জুম, হ্যাংআউট, স্কাইপের মতো প্রযুক্তি ব্যবহার করে লাইভ ক্লাসরুমের মাধ্যমে পাঠদান পরিচালনা করা হচ্ছেনা। এ ছাড়া ম্যাসেঞ্জার গ্রুপ বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন পেজ বা গ্রুপেও লেখাপড়া চালানো সম্ভব।

সচেতন অভিভাবকরা জানিয়েছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীর মধ্যে কথাবার্তার আদান-প্রদান ছাড়া আনন্দময় শিক্ষা সম্ভব নয়। কিন্তু বাংলাদেশে যেভাবে টিভিতে ক্লাস সম্প্রচার করা হচ্ছে তাতে শিক্ষকের সঙ্গে কথাবার্তা আদান-প্রদান সম্ভব নয়। শিক্ষক যা বোঝালেন তা না বুঝলেও কিছু করার নেই। কিন্তু গুগল ক্লাসরুম, জুমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে শিক্ষককে প্রশ্ন করার সুযোগ আছে। এরপর শিক্ষক বিষয়টি বুঝিয়েও দিতে পারেন।
শিক্ষক-শিক্ষার্থী পরস্পর প্রশ্নোত্তর আদান প্রদান ছাড়া ক্লাস ফলপ্রসূ হবেনা বলে অভিমত প্রবীণ শিক্ষকদের।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, লাইভ ক্লাস প্রচারে নিজ নিজ স্কুলকে উদ্যোগী হতে হবে। প্রতিটি ক্লাসের শিক্ষকরা তাঁদের শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য ক্লাসের ব্যবস্থা করবেন।সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দেশের সব মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরকার মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম স্থাপন করেছে। এই ক্লাসরুমের জন্য ল্যাপটপ, প্রজেক্টর, ইন্টারনেট সংযুক্তিসহ সব ধরনের যন্ত্রপাতি সরবরাহ করা হয়েছে। শিক্ষকদের বিশেষভাবে প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়েছে। এগুলো ব্যবহার করেই লাইভ ক্লাসরুম প্রচার করা সম্ভব। এ ছাড়া শিক্ষকরা যার যার মোবাইলে নিজ নিজ ক্লাসের শিক্ষার্থীদের অভিভাবককে যুক্ত করে পড়ালেখা আদান-প্রদান করতে পারেন।

উন্নত দেশগুলোতে গুগল ক্লাসরুম জুম, হ্যাংআউট, স্কাইপসহ নানা প্রযুক্তিতে ক্লাস চলছে তবে এখনো বাংলাদেশে এ পরিবেশ সৃষ্টি হয়নি। এ জন্য দেশের প্রত্যেক শিক্ষককে আইসিটি ট্রেনিং দিয়ে দক্ষ করে তোলার জন্য মত দেন শিক্ষা সংশ্লিষ্টরা।

📌📌শিক্ষা সম্পর্কিত খবরাখবর জানতে এখানে ক্লিক করে শিক্ষা গ্রুপে ঢুকে JOIN GROUP এ  ক্লিক করুন।গ্রুপে আপনিও শেয়ার করুন…

👉👉দৈনন্দিন শিক্ষা সম্পর্কিত খবরাখবর পেতে এখানে ক্লিক করে দৈনিক শিক্ষা সংবাদ পেইজে ঢুকে ” LIKE PAGE ” 👍 এ লাইক দিন

♣এডমিন,সম্পাদক ও প্রকাশক : 

♦♣Najmuddin Md. Tawhed

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Facebook Comments