ফটিকছড়িতে শিশু দিহান খুন হয় আপন চাচির হাতে

952

ফটিকছড়িতে শিশু দিহান খুন হয় আপন চাচির হাতে

ফটিকছড়ি (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে নিঁখোজের এক ঘন্টা পর নাড়িভুড়ি বের করা অবস্থায় লাশ খুঁজে পাওয়া ৪ বছরের শিশু দিহানকে নির্মমভাবে হত্যা করেন নিজ বড় চাচী রেশমা আক্তার(২৫)। ঘটনার পর সন্দেহজনক ভাবে চাচিকে আটক করা হলে রাতেই পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার কথা স্বীকার করেন তিনি। পারিবারিক শত্রুতার জের ধরে তাকে নির্মম ভাবে সবজি কাটার ছুরি দিয়ে কুছিয়ে কুছিয়ে হত্যা করে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানান তিনি।

——————————————————————-

📌📌শিক্ষা সম্পর্কিত খবরাখবর জানতে এখানে ক্লিক করে শিক্ষা গ্রুপে ঢুকে JOIN GROUP এ  ক্লিক করুন।গ্রুপে আপনিও শেয়ার করুন…

——————————————————————-

👉👉দৈনন্দিন শিক্ষা সম্পর্কিত খবরাখবর পেতে এখানে ক্লিক করে দৈনিক শিক্ষা সংবাদ পেইজে ঢুকে ” LIKE PAGE ” 👍 এ লাইক দিন

——————————————————————-

পুলিশ জানায়, চাচি নিজ হাতে ছুরি দিয়ে মাসুম বাচ্চাটির শরীরে ১৬ টি আঘাত করেন, সব রক্ত তিনি নিজ হাতে পানি দিয়ে পরিষ্কার করে বাচ্চাটিকে কলাপাতা মুড়িয়ে পাশের লাকড়ির ঘরে লুকিয়ে রাখেন।

ফটিকছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ বাবুল আক্তার বলেন, এ ঘটনা খুবই অমানবিক। এ ঘটনায় নিহত শিশুর মা জনি আক্তার বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় জড়িত চাচি রেশমা আক্তারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। চাচির স্বীকারোক্তিতে হত্যাকান্ডে ব্যবহ্নত ছুরি টি উদ্ধার করা হয়েছে। একটি সবজি কাটার ছুরি দিয়ে খুন করা হয় দিহানকে।

উল্লেখ্য, গতকাল ২৬ এপ্রিল দুপুর ১ উপজেলার পাইন্দং ইউনিয়নের দক্ষিণ পাইন্দং কালু বাপের একটি লাকড়ির ঘর থেকে নাড়িভুঁড়ি বের হওয়া অবস্থায় দিহানের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত দিহান পাইন্দং কালু বাপের বাড়ীর দিদারুল আলমের পুত্র।ফটিকছড়ি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে রবিবার বিকাল ৪ টায় লাশ উদ্ধার করে এবং ঘটনার তদন্ত শুরু করে।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Facebook Comments